প্রথম ম্যাচ হেরেও ভারত সিরিজ ছিনিয়ে নিল ইংল্যান্ডের থেকে।

টি-টোয়েন্টি সিরিজের পাঁচ ম্যাচে প্রথম ম্যাচেই ইংল্যান্ডের কাছে হেরে ১-০ ফলাফলে পিছিয়ে পড়ে ভারত, কিন্তু দ্বিতীয় ম্যাচেই ইংল্যান্ডকে দূর্মুস করে সিরিজে সমতা ফেরায় ভারত। দ্বিতীয় ম্যাচেই ভারতের হয় ডেবিউ করেছিল তরুণ উইকেট-রক্ষক ঈশান কিশান, ও সূর্য কুমার যাদব। ডেবিউ ম্যাচ এই ইশান কিশান দুরন্ত হাফসেঞ্চুরি উপর ভর করে ভারত অনায়াসে রান চেজ করে দেয়, কিন্তু তৃতীয় ম্যাচে অধিনায়ক বিরাট কোহলি ছাড়া কোন খেলোয়ার সফল হতে পারেননি ব্যাট হাতে, ইংল্যান্ড ফের তৃতীয় ম্যাচ জিতে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-১ এগিয়ে যায়, এই অবস্থা থেকেই দুরন্ত প্রত্যাবর্তন করে টিম ইন্ডিয়া, সূর্য কুমার যাদব ব্যাট হাতে ৫৭ রানের একটি ঝড়ো ইনিংস খেলে, এবং প্রথম ব্যাট করে ভারত বড় রানের লক্ষ্যমাত্রা রাকে ইংল্যান্ডের সামনে এবং বল হাতে দুরন্ত পারফরম্যান্স করেন অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া ও শার্দুল ঠাকুর।

sports_30 পাঁচ ম্যাচের সিরিজে চতুর্থ মেয়াদ শেষ হওয়ার পর ফলাফল দাঁড়ায় 2-2। শেষ ম্যাচ অর্থাৎ সিরিজের পঞ্চম ম্যাচ ছিল সিরিজ নির্ণায়ক ম্যাচ। ইংল্যান্ড ক্যাপ্টেন ইয়ন মরগান টসে জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নেয়, ব্যাট হাতে ওপেনিংয়ে আসে ক্যাপ্টেন কোহলি ও হিটম্যান রোহিত শর্মা, রোহিত শর্মা ৬৪(৩৪) রান করে স্টোকসের বলে বোল্ড হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন, রোহিত শর্মা ঘুরিয়ে দিয়ে যায় ম্যাচের মোড়, এরপর তিন নম্বরে সুযোগ পাওয়া সূর্য কুমার যাদব একটি ছোট রানের গুরুত্বপূর্ণ ঝড়ো ইনিংস খেলেন, যা স্কোরবোর্ডে একটি বিরাট রান তুলতে সহায়তা করে, আদিল রশিদ এর বলে সূর্য কুমার যাদব আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন, স্কোরবোর্ডে রানের গতি ধরে রাখার জন্য চার নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানো হয় অলরাউন্ডার হার্দিক পান্ডিয়া কে, এবং হার্দিক পান্ডিয়া আসল সময় তার সেরাটা দেয়,৩৯(১৭) রানের ইতি ঝড়ো ইনিংস খেলে ও অপরদিকে ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি তার ৮০(৫২) রানের গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে।sports_30

বর রানের লক্ষ্যমাত্রা রাখে ইংল্যান্ডের সামনে, ইংল্যান্ড দল ২২৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই ভুবনেশ্বর কুমারের দুরন্ত ইন সুইং জাসন রয় কে ক্লিন বোল্ড করে, কিন্তু জজ বাটলার ডেভিড মালান একসময় খেলাটিকে নিজেদের আয়ত্তে করে নেয় কিন্তু সেই ভুবনেশ্বর কুমারের বলে ফিরে যায় জজ বাটলার, পরের ওভারেই শার্দুল ঠাকুর ডেভিড মালান ক্লিন বোল্ড করে ইংল্যান্ডের প্রায় সমস্ত আশায় জল ঢেলে দেয় শার্দুল ঠাকুর। নির্ধারিত কুড়ি ওভারে ইংল্যান্ড দল ১৮৮ রান করেন ৮ উইকেটে ৩৬ রানে পরাজিত হয় ভারতের কাছে, ৩-২ ফলাফলে সিরিজ জিতে নেই ভারত। ম্যাচের সেরা ঘোষণা করা হয় ভুবনেশ্বর কুমার কে ও সিরিজের সেরা ঘোষণা করা হয় বিরাট কোহলি কে। সিরিজে সর্বোচ্চ উইকেট নেয় শার্দুল ঠাকুর, মোট আটটি ও সবথেকে বেশি রান করে বিরাট কোহলি। এই সিরিজ জয়ের ফলে ভারত আইসিসি টি-টোয়েন্টি রেংকিং এ দুই নম্বরে উঠে আসে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *