গতকাল চাকরির পরীক্ষা দিতে এসে ,ট্রেন থেকে পড়ে মৃত‍্যু হয় এক B.tech ছাত্রীর।

রবিবার চাকরির পরীক্ষা দিতে এসে ট্রেন থেকে পরে গিয়ে মৃত্যু হয় ,উত্তর ২৪ পরগনার সোদপুর শেঠ কলোনির বাসিন্দা পূজা দত্ত। কিন্তু তার আর জীবিত অবস্থায় ঘরে ফিরা হল না।চলে গেল এক তরতাজা ইয়ং মেয়ে।পূজার পারিবারিক আর্থিক অবস্থা খুব ভালো নয়। একান্ত নিজের চেষ্ঠায় পরাশুনা চালিয়েছে সে।পরাশুনার পাশাপাশি চাকরির পরীক্ষাও দিচ্ছিলো পূজা দত্ত।গতকাল ব্যরাকপুরে এক কলেজে চাকরির পরীক্ষা দিতে গিয়েছিল,কিন্তু ট্রেন থেকে পরে মৃত্যু হয় পূজা দত্তের।হঠাৎ করে একমাত্র মেয়ে মারা যাওয়ায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারে।এলাকাতে ও খুব পরিচিত সম্ভবনাময় তরুনির মৃত্যু হওয়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে।কিছুদিন আগে শুভম দে নামে এক কিশোর ও মারা যায় ট্রেন থেকে পরে গিয়ে।শুভম তার মায়ের সাথে জয়েন্ট পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলো পূর্ব বর্ধমানে।তার বাড়ি কালনাতে।কালনাতে এক ইংরাজি মাধ্যমে বেসরকারি স্কুলে পড়াশুনা করতো।

 

জয়েন্টের পরীক্ষা শেষ করে মায়ের সাথে কাটোয়া গামী এক লোকাল ট্রেনে উঠেছিলো।কিন্তু বেহুলা স্টেশানে ঢোকার আগে শুভম এর একটি ফোন আসে বলে জানা যায়।ট্রেনের গেটের সামনে ই  দাঁড়িয়ে কথা বলতে বলতে মায়ের সামনে ট্রেন থেকে পরে যায়।ঘটনাস্থলেই মারা যায় এবং কালনা থানার পুলিশ ময়নাতন্ত এর জন্য নিয়ে যায়।তাঁকে শেষ বার দেখার জন্য স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকা সহ বন্ধুরা দেখতে যায় ।পরিবারে আকস্মিক ছেলের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।একটা কথা বলা জুরুরি, ট্রেনে যাওয়ার সময় একটু সর্তক ভাবে যাওয়া উচিত, নাহলে এভাবে অনেক দেশের ভবিষ্যত প্রান হরাবে।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *