পদ্মশ্রী প্রাপক হিসাবে “সদাই ফকির ” এর নাম ঘোষণা হল এবছর।

বিশেষ প্রতিবেদন, ৩ মার্চ

পৃথিবীর বেশির ভাগ মানুষ যেখানে টাকার পেছনে দৌড়াচ্ছে , সেখানে সুজিত চক্রবর্তীর মতো মাস্টার মশাই মাত্র ২টাকা নিয়ে শিক্ষা দান করছেন। আসলে তিনি শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দিচ্ছেন তার শিক্ষাত্রীদের মধ্যে।তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন শিক্ষা দেওয়ার জন্য কোন সৎ মনো ইচ্ছা থাকার ই শুধু প্রয়োজন।সুজিত চক্রবর্তী ৪০ বছর  ধরে শিক্ষকতা করেছেন একটি স্কুলে(Ramnagar uccha Madhyamik vidyalaya )। মাধ্যমিক,উচ্চমাধ্যমিক থেকে অর্নাস লেবেলের ছাত্রছাত্রী তিনি পড়ান।বেশির ভাগ শিক্ষার্থী মেয়ে(৮০%) বলেই জানান ” সদাই ফকির পাঠশালার মাস্টার মশাই” । অর্নাস এর  শিক্ষার্থী দের তিনি বাংলা বাষয়টি পড়ান,আর উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের সায়েন্সের বিষয় বাদে সব বিষয় পরান। স্কুলের নাম “The Enternal Fakir’s school”। স্কুল শুরু হয় সকাল ৬.৩০ থেকে ,চলে সন্ধ‍্যে ৬ টা পর্যন্ত।এমন একজন শিক্ষক কে শতকোটি প্রনাম জানাই। যার শিক্ষা দান করা টা শুধুই শিক্ষা দান করার উদ্দেশ্য নয়,বরং শিক্ষার্থীদের কে উপযুক্ত শিক্ষা দিয়ে বড় করে তোলা, যেখানে টাকা পয়সার কোনো বড়ো দেওয়াল নেই।গরিব বাড়ির ছাত্র ছাত্রীরা খুব সহজেই শিক্ষা লাভ করতে পারবে এমন এক সুর্নিদিষ্ঠ পরিকল্পনায় সজ্জিত সুজিত বাবুর এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।ওনার মতো শিক্ষক পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার।  আন্তরিক সাধুবাদ জানাই ওনাকে এবং ওনার প্রচেষ্টার সফলতা কামনা করি।

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *